জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২২nd মে ২০১৯

চলমান কার্যক্রমসমূহ

১) প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্রের মাধ্যমে বিনামূল্যে থেরাপী সেবা প্রদান

২) অটিজম রিসোর্স সেন্টার

৩) অটিজম সচেতনতা ও দক্ষতা বৃদ্ধি বিষয়ক প্রশিক্ষণ

৪) অটিজম ও এনডিডি কর্ণার সেবা

৫) স্পেশাল স্কুল ফর চিলড্রেন উইথ অটিজম

৬) জাতীয় বিশেষ শিক্ষা কেন্দ্র

৭) কর্মজীবী প্রতিবন্ধী পুরুষ ও মহিলা হোস্টেল

৮) ভ্রাম্যমাণ ওয়ান স্টপ থেরাপি সার্ভিস ( মোবাইল ভ্যান এর মাধ্যমে )

৯)  ক্ষুদ্র ঋণ ও অনুদান কার্যক্রম

১০) পিতৃ-মাতৃহীন প্রতিবন্ধী শিশু নিবাস

১১) জাতীয় প্রতিবন্ধী কমপ্লেক্স নির্মাণ

১২) প্রতিবন্ধী ক্রীড়া কমপ্লেক্স

১৩) প্রতিবন্ধিতা উত্তোরণ মেলা

১৪) Disability Job Fair

১৫) জাতীয় ও আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস এবং বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস পালন

১৬) প্রকাশনা কার্যক্রম

১৭) গণসচেতনতা ও প্রামাণ্য চিত্র তৈরী/প্রদর্শন

১৮) সেমিনার ও ওয়ার্কশপ

১৯) নীলবাতি প্রজ্বলন

বিস্তারিত

 

প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্রের মাধ্যমে বিনামূল্যে থেরাপী সেবা

দেশের প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠীকে বিনামূল্যে ফিজিওথেরাপি ও অন্যান্য চিকিৎসা সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে বর্তমান সরকারের আমলে ২০০৯-২০১০ অর্থ বছরে অর্থ বিভাগের ধারণাপত্রের ভিত্তিতে প্রথমবারের মতো দেশের পাঁচটি জেলায় প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র চালু করা হয়। ২ এপ্রিল ২০১০ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আনুষ্ঠানিকভাবে প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র শীর্ষক কর্মসূচি উদ্বোধন করেন। প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্রের সেবা কার্যক্রম বিভিন্ন মহলে প্রশংসিত হওয়ায় ২০১০-২০১১ অর্থ বছরে পূর্বের পাঁচটি কেন্দ্রের কার্যক্রম নবায়ন করে আরও ১০টি, ২০১১-১২ অর্থ বছরে পূর্ববর্তী বছরগুলোর ১৫টি কেন্দ্রের কার্যক্রম নবায়ন করে আরও ১০টি এবং ২০১২-১৩ অর্থ পূর্ববর্তী বছরগুলোর ৩৫টি কেন্দ্র নবায়নসহ আরও ৩৩টি জেলায় প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র সম্প্রসারণ করা হয়েছে। বর্তমানে দেশের ৬৪টি জেলা ও ৩৯টি উপজেলায় ১০৩টি প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র চালু রয়েছে। এ পর্যন্ত নিবন্ধিত সেবা গ্রহীতার সংখ্যা ৪,০৫,৪৯১ ও সেবার সংখ্যা (Service Transaction) ৫২,৪০,৭৩২। তাছাড়া প্রতিটি কেন্দ্রে একটি করে অটিজম কর্ণার চালু করা হয়েছে।  দেশের প্রতিটি উপজেলায় পর্যায়ক্রমে একটি করে প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র চালু করা হবে। 

 

অটিজম রিসোর্স সেন্টার

২০০৯-২০১০ অর্থ বছরে জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউণ্ডেশনের উদ্যোগে ফাউণ্ডেশনের নিজস্ব ক্যাম্পাসে অটিজম রিসোর্স সেন্টার চালু করা হয়।

উক্ত কেন্দ্র থেকে নিম্নোক্ত সেবাসমূহ প্রদান করা হয়-

•  সনাক্তকরণ  

•  এসেসমেন্ট

•   অকুপেশনাল থেরাপি

•  স্পিচ এ্যান্ড ল্যাংগুয়েজ থেরাপি

•   ফিজিওথেরাপি

•   কাউন্সেলিং

•   রিসোর্স বেইজড সেমিনার

•   টেলি থেরাপি

•   গ্রপ থেরাপি প্রদান

•  দৈনন্দিন কার্যবিধি প্রশিক্ষণসহ রেফারেল সেবা প্রদান

•  অটিস্টিক শিশুদের পিতা-মাতাদের কাউন্সেলিং সেবা প্রদান

 

উক্ত সেন্টার হতে এপর্যন্ত ১৬৮৭৭ জন বিভিন্ন বয়সের অটিজম আক্রান্ত শিশু/ব্যক্তিকে বিনামূল্যে সেবা প্রদান করা হয়েছে এবং তা অব্যাহত আছে। এ কেন্দ্র থেকে Home Intervention সুবিধাও প্রদান করা হচ্ছে।

 

অটিজম সচেতনতা ও দক্ষতা বৃদ্ধি বিষয়ক প্রশিক্ষণ

অটিজমসহ অন্যান্য প্রতিবন্ধিতা বিষয়ে সাধারণ মানুষকে সচেতন করে তোলার লক্ষ্যে ফাউণ্ডেশনের উদ্যোগে ২০০৯ সন হতে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ কর্মসূচি বাস্তবায়িত হচ্ছে। এসব প্রশিক্ষণে প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠীর পাশাপাশি তাদের পিতামাতা ও অভিভাবককেও সম্পৃক্ত করা হচ্ছে। প্রতিবন্ধিতা বিষয়ক বিভিন্ন প্রশিক্ষণ কর্মসূচির আওতায় এ পর্যন্ত ৪৭২ জন  অভিভাবক/পিতা-মাতা, অটিস্টিক শিশুসহ ৩,০০০ বিভিন্ন ক্যাটাগরির প্রতিবন্ধী ব্যক্তিকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে।

এছাড়া জনবলকে দক্ষ করে গড়ে তোলার জন্য অভ্যন্তরীণ ও বৈদেশিক প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে ।

  • এ পর্যন্ত অভ্যন্তরীন প্রশিক্ষণঃ ৩,৯৩৫ জন
  • বৈদেশিক প্রশিক্ষণঃ ২১৫

 

অটিজম ও এনডিডি কর্ণার সেবা

Early Screening, Detection, Assessment ও Early Intervention নিশ্চিত করার জন্য ১০৩টি প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্রে একটি করে অটিজম ও নিউরো ডেভেলপমেন্টাল প্রতিবন্ধী (এনডিডি) কর্ণার’ স্থাপন করা হয়েছে।

 

স্পেশাল স্কুল ফর চিলড্রেন উইথ অটিজম

ঢাকা শহরের মিরপুর, লালবাগ, উত্তরা ও যাত্রাবাড়ীতে ১টি করে, ৬টি বিভাগীয় শহরে ৬টি (রাজশাহী, খুলনা, চট্টগ্রাম, বরিশাল, রংপুর ও সিলেট) এবং গাইবান্ধায় ১টিসহ মোট ১১টি স্পেশাল  স্কুল ফর চিলড্রেন উইথ অটিজম চালু করা হয়েছে। এ স্কুল থেকে ১৪৭ জন অটিজম  শিশু বিনা বেতনে প্রি স্কুলিং এর সুযোগ পাচ্ছে।

 

জাতীয় বিশেষ শিক্ষা কেন্দ্র

বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিক্ষার্থীদের শিক্ষা প্রদানের লক্ষ্যে জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের আওতায় রাজধানী ঢাকার মিরপুরে জাতীয় বিশেষ শিক্ষা কেন্দ্র নামে একটি কেন্দ্র পরিচালিত হচ্ছে। প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের শিক্ষা, প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসনের লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় দক্ষ জনবল সৃষ্টি, বিশেষ শিক্ষা উপকরণ তৈরি ও বিতরণসহ সর্বস্তরের জনগণকে সচেতন করে তোলাই এ কেন্দ্রের মূল উদ্দেশ্য। এ কেন্দ্রে রয়েছে বিশেষ শিক্ষা শিক্ষক প্রশিক্ষণ কলেজ, হোস্টেল ও রিসোর্স সেকশন। মানসিক, শ্রবণ ও দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য তিনটি পৃথক স্কুলসহ রয়েছে তিনটি হোস্টেল। বিশেষ শিক্ষা শিক্ষক প্রশিক্ষণ কলেজ’এ বিএসএড (ব্যাচেলর অব স্পেশাল এডুকেশন) কোর্স চালু রয়েছে।

কর্মজীবী প্রতিবন্ধী পুরুষ ও মহিলা হোস্টেল

বর্তমান সরকারের সময় প্রথমবারের মতো ঢাকা মহানগরের ফাউণ্ডেশন প্রাঙ্গনে চাকুরী প্রত্যাশি ও কর্মক্ষম প্রতিবন্ধী মানুষের ক্ষমতায়নের লক্ষ্যে ফাউন্ডেশন ক্যাম্পাসে ৩২ আসন বিশিষ্ট পুরুষ ও মহিলা হোস্টেল চালু করা হয়েছে। সেপ্টেম্বর ২০১৮ পর্যন্ত উপকারভোগীর সংখ্যা ২৭৫ জন।

 

ভ্রাম্যমাণ ওয়ান স্টপ থেরাপি সার্ভিস ( মোবাইল ভ্যান এর মাধ্যমে )

 

প্রত্যন্ত অঞ্চলের প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠীকে বিনামূল্যে ফিজিওথেরাপি, অকুপেশনাল থেরাপি, হিয়ারিং টেস্ট, ভিজুয়্যাল টেস্ট, কাউন্সেলিং, প্রশিক্ষণ, সহায়ক উপকরণ ইত্যাদি সেবা প্রদানের লক্ষ্যে ফাউণ্ডেশনের মাধ্যমে ২০১০ সালে প্রথমবারের মতো ভ্রাম্যমাণ ওয়ান স্টপ থেরাপি সার্ভিস (মোবাইল ভ্যান এর মাধ্যমে) চালু করা হয়েছে। ৩২টি ভ্রাম্যমান থেরাপি ভ্যান এর মাধ্যমে সেবা প্রদান করা হচ্ছে । ৬১ টি জেলা ও ৩১০ টি উপজেলায় এ পর্যন্ত নিবন্ধিত থেরাপিউটিক সেবা গ্রহিতার সংখ্যা ২,৮৩,৪৯৫ জন এবং প্রদত্ত সেবা সংখ্যা ৬,১৫,৮৮৭  জন।

 ক্ষুদ্র ঋণ ও অনুদান কার্যক্রম

প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের কল্যাণ ও উন্নয়নে ২০০২-২০০৩ অর্থ বছর থেকে শুরু করে ২০১৬-২০১৭ অর্থবছর পর্যন্ত সময়ে মোট প্রায় ৯ কোটি ৭৪ লক্ষ টাকা অনুদান ও ২ কোটি ৭১ লক্ষ টাকা ক্ষুদ্র ঋণ প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের নিয়ে কর্মরত বেসরকারি সংস্থার মধ্যে বিতরণ করা হয়েছে। উপকারভোগীর সংখ্যা প্রায় ১,১২,৫০০ জন।

 

পিতৃ-মাতৃহীন প্রতিবন্ধী শিশু নিবাস

জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশন ক্যাম্পাসে জাতীয় বিশেষ শিক্ষা কেন্দ্রের দৃষ্টি প্রতিবন্ধী হোস্টেলের ২টি কক্ষে ফাউন্ডেশনের সম্পূর্ণ নিজস্ব অর্থায়নে প্রাথমিক পর্যায়ে ১০ জন সেরিব্রাল পলসি (সিপি) শিশুদের লালন পালন, শিক্ষা, চিকিৎসা ও পুনর্বাসনের জন্য স্বল্প পরিসরে একটি প্রতিবন্ধী শিশু নিবাস চলমান আছে। প্রতিবন্ধী শিশু নিবাসে পিতৃ-মাতৃহীন প্রতিবন্ধী শিশুর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

 

 জাতীয় প্রতিবন্ধী কমপ্লেক্স

 

প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠীর ক্ষমতায়ন ও পুনর্বাসন নিশ্চিত করার লক্ষ্যে জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে ঢাকার মিরপুর-১৪ এ ১৫তলা বিশিষ্ট অত্যাধুনিক জাতীয় প্রতিবন্ধী কমপ্লেক্স নির্মাণের কাজ শুরু হয়। গত ২ এপ্রিল ২০১৪ তারিখ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী উক্ত কমপ্লেক্সের শুভ উদ্বোধন করেন। উক্ত প্রতিবন্ধী কমপ্লেক্সে অটিজমসহ অন্যান্য বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের ডরমিটরি, অডিটরিয়াম, ওপিডি, ফিজিওথেরাপি সেন্টার, শেল্টারহোম, ডে-কেয়ার সেন্টার, বিশেষ স্কুল ইত্যাদির সংস্থান রাখা হয়েছে। ১৫তলা বিশিষ্ট মাল্টিপারপাস জাতীয় প্রতিবন্ধী কমপ্লেক্সটির নির্মাণ কাজ গত ৩০ জুন ২০১৮ সমাপ্ত হয়েছে।  কমপ্লেক্সটি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক উদ্বোধনের অপেক্ষায় রয়েছে।

ভৌত অবকাঠামো -

  • ১৫ তলা বিশিষ্ট মাল্টিপারপাজ বিল্ডিং ১টি
  • ৪ তলা বিশিষ্ট বয়েজ ডরমিটরী - ১টি
  • ৪ তলা বিশিষ্ট গার্লস ডরমিটরী - ১টি
  • ৪ তলা বিশিষ্ট  প্যারেন্টস ডরমিটরী - ১টি
  • ২ তলা বিশিষ্ট সম্প্রসারিত একাডেমিক ভবন - ৫টি
  • ডিপ টিউবওয়েল ও পাম্প হাউজ- ১টি
  • গার্ড হাউজ -১টি
  • প্রধান ফটকে নিরাপত্তা কক্ষ -২টি
  • পাহারা চৌকি -৪টি
  • উপযুক্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা সম্বলিত সীমানা প্রাচীর
  • অত্যাধুনিক অগ্নি নির্বাপন ব্যবস্থা ও নিরাপত্তা ব্যবস্থার প্রবর্তন
  • আন্তর্জাতিক মানের অভীগম্যতা (Accessibility) নিশ্চিতকরণ

 

কমপ্লেক্সে সৃজিতব্য সুযোগসুবিধাসমূহ-

  • প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্রের কার্যক্রম পরিচালনার উপযোগী সুবিধা সৃষ্টি
  • ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তা/কর্মচারীদের দাপ্তরিক কক্ষ
  • ডাউন সিনড্রোম সিপি ব্যক্তি/ শিশুদের চিকিৎসা, পুনর্বাসন, কাউনসেলিং
  • প্রতিবন্ধীদের তৈরী সামগ্রী বিক্রয় ও প্রদর্শনী কেন্দ্র
  • ডে কেয়ার সেন্টার, খেলাধুলা ও বিনোদনের ব্যবস্থা
  • লাইব্রেরী, অডিটোরিয়াম ও ক্যাফেটেরিয়া
  • প্রতিবন্ধীদের কারিগরি প্রশিক্ষণের উপযুক্ত ব্যবস্থা
  • আন্ডারগ্রাউন্ডে ২৫ টি গাড়ী পার্কিং এর সুবিধা

 

প্রতিবন্ধী ক্রীড়া কমপ্লেক্স

জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক মানের প্রতিবন্ধী ক্রীড়া কমপ্লেক্স স্থাপনের জন্য সাভার থানাধীন বারইগ্রাম ও দক্ষিণ রামচন্দ্রপুর মৌজার ১২.০১ একর খাস জমির উপর প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠীর জন্য পুনর্বাসন কেন্দ্র, ফুটবল ও ক্রিকেট ফিল্ড, বিনোদন জোন, সুইমিংপুল, মাল্টিপারপাস জিমনেসিয়াম, মসজিদ, আবাসিক কোয়ার্টার, গেস্ট হাউজ, হোস্টেল ইত্যাদি সুবিধা সম্বলিত ক্রীড়া কমপ্লেক্স নির্মাণ করা হবে।

গণপূর্ত বিভাগ কর্তৃক ২৭৮৪৫.৫৫ লক্ষ টাকা প্রকল্প বাস্তবায়ন ব্যয় সম্বলিত একটি ডিপিপি প্রণয়নপূর্বক সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়েছে।

 

কমপ্লেক্সের ভৌত অবকাঠামো ও সৃজিতব্য সুযোগসুবিধা-

  • ১০ তলা বিশিষ্ট একাডেমিক ভবন
  • ডরমিটরি
  • আবাসিক ভবন
  • জিমনেসিয়াম
  • সুইমিংপুল
  • মসজিদ
  • ক্রিকেট ও ফুটবল ফিল্ড
  • গ্যালারী

 

প্রতিবন্ধিতা উত্তোরণ মেলা

৩ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস উদযাপন উপলক্ষ্যে ফাউন্ডেশন চত্বরে প্রতিবন্ধিতা উত্তরণ মেলার আয়োজন করা হয়। মেলায় প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের তৈরী বিভিন্ন পণ্যসামগ্রী প্রদর্শন ও বিপণনের ব্যবস্থা করা হয়। গণসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে মেলায় প্রতিদিন বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে আলোচনা সভা ও বিশেষ মেধাসম্পন্ন প্রতিবন্ধী শিল্পীদের অংশগ্রহণে নাচ, গান, আবৃতি পরিবেশনসহ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

 

Disability Job Fair

জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে মে ২০১৬ ও নভেম্বর ২০১৮ সনে ২ দিনব্যাপী ২টি জব ফেয়ারের আয়োজন করা হয়েছে। জব ফেয়ার আয়োজনের মাধ্যমে বিগত ২ বছরে ৭৯ জন প্রতিবন্ধী ব্যক্তিকে বিভিন্ন কর্পোরেট সংস্থায় চাকুরীর ব্যবস্থা করা হয়েছে। মেলায় ৮৭৪ জন অংশগ্রহণকারী(আবেদনকারী) এর তথ্য তালিকা প্রস্তুত করে ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে।

 

জাতীয় ও আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস এবং বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস পালন

প্রতিবছর জাতীয় ও আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস এবং বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় সরকারী ও বেসরকারী সহায়তায় আড়ম্বরপূর্ণ পরিবেশে উদযাপন করা হয়।

 

প্রকাশনা কার্যক্রম

অটিজমসহ অন্যান্য প্রতিবন্ধিতা বিষয়ে সামাজিক সচেতনতা গড়ে তোলার লক্ষ্যে জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে জানুয়ারি ২০১৩ মাস থেকে ‘আমরা করবো জয়’ শিরোনামে একটি মাসিক ম্যাগাজিন নিয়মিত প্রকাশ করা হচ্ছে। 

 

গণসচেতনতা ও প্রামাণ্য চিত্র তৈরী/প্রদর্শন

অটিস্টিক শিশু ও ব্যক্তিদের বিভিন্ন সেবা সম্বলিত গ্লোবাল অটিজম কর্তৃক প্রস্তুতকৃত একনজরে তৈরীকৃত পোস্টার এবং জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে তৈরীকৃত বুকলেট ১০৩টি প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্রে সংরক্ষণ ও ব্যবহার করা হচ্ছে। প্রতিবন্ধিতা বিষয়ক কর্মক্রম সম্পর্কিত বিলবোর্ডও স্থাপন করা হয়েছে। ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে অটিস্টিক শিশু/প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের বিভিন্ন সেবা প্রদান সম্বলিত উন্নয়ন কর্মকান্ডের প্রামাণ্য চিত্র তৈরী ও প্রদর্শনির ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

 

সেমিনার ও ওয়ার্কশপ

এপর্যন্ত ১২টি সেমিনার ও ওয়ার্কশপ ফাউন্ডেশনের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়। বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, এনজিও ব্যক্তি, অটিজম ও প্রতিবন্ধিতা বিষয়ে বিশেষজ্ঞগণের সমন্বয়ে এবং বিভিন্ন শ্রেণী পেশার লোকজনের উপস্থিতিতে উক্ত সেমিনার ও ওয়াকর্শপ অনুষ্ঠিত হয়।

 

নীলবাতি প্রজ্বলন

অটিজম বিষয়ে সচেতনতা তৈরীর লক্ষ্যে ২ এপ্রিল ফাউন্ডেশন এর প্রধান কার্যালয়সহ ও ১০৩টি প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্রে মাসব্যাপী নীল বাতি প্রজ্জলন করে থাকে। এ ছাড়া বিভিন্ন প্রচার-প্রচারণ কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।

 

 

 


Share with :

Facebook Facebook